হাতিয়ায় ৯৯৯ কল পেয়ে পুলিশ, লাশ উদ্ধার করল গৃহবধূর

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার পৌর এলাকায় সুরমা বেগম (১৯) নামের এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী ও শশুর পরিবারের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে নিহতের স্বামীসহ শশুর পরিবারের লোকজন।

রোববার দুপুরে জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল পেয়ে উত্তর বেজুগালিয়া এলাকা থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার পুলিশ। নিহত সুরমা বেগম ওই এলাকার নাজিম উদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৭মাস পূর্বে পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড উত্তর বেজুগালীয়া গ্রামের মৃত বশির উল্ল্যার ছেলে নাজিম উদ্দিনের সাথে পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আবু তাহেরের মেয়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে বিভিন্ন সময় ঝগড়া বিবাদ হয়ে আসছিলো। এ নিয়ে কয়েকবার পারিবারিকভাবে বৈঠক করা হয়েছে।

নিহতের পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, রোববার সকালে পারিবারিক কলহের জের ধরে বাকবির্তকের এক পর্যায়ে নাজিম উদ্দিন তার বসতঘরে স্ত্রী সুরমা বেগমকে পিটিয়ে মাথায় আঘাতের পর গলা টিপে হত্যা করে। মৃত্যুর বিষয়টি জানার পর সুরমার বাবা-মা, আত্মীয় স্বজন ছুটে আসলে স্বামীসহ তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে যায়।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top